কবি আরিফুল ইসলাম এর তৃতীয় কাব্যগ্রন্থ প্রি-অর্ডার করতে এখানে ক্লিক করুন

কবিতা

;

যতোই বলো- মহাদেব সাহা

যতোই বলো আমি আজো সেই শৈশবের নির্জন ছায়ার মধ্যে ডুবে আছি সেই মর্নিং ইশকুল, রেনিডে,পুকুরঘাট আজো আমি ধানের গন্ধে ডুবিয়ে রেখেছি শরীর; কান পাতালে সারাক্ষন শুনতে পাই টুপটাপ ওস পড়ার শব্দ আমার পক্ষে অনেক কিছু গুলিয়ে ফেলাই স্বাভাবিক, মাঝে মাঝে আমার দু’চোখ ভিজে উঠাই স্বাভাবিক। আমি শপিংমল, মোটরগা..

আরও পড়ুন
;

সেনাশাসন - হাসানআল আব্দুল্লাহ

উর্দি পরা বৃটিশ তোমাকে ছিঁড়ে ছিলো। পাকিস্তানী জানোয়ার লুট করেছিলো দেহ। তারপর শুরু হয় লুঙ্গি পরা মাস্তানের খেলা। পর্তুগিজ জলদস্যু আর আরাকান থেকে আগে ভাগে আসা দুই একজন খুব বেশি সুবিধা করতে পারেনি যদিও– তথাপি তারাও রেখেছিলো নখের আচড়। তুমি বোধের চাতালে বসে দেখেছো নিদ্রিত চাঁদ চোখের পানিতে ভিজে।..

আরও পড়ুন
;

স্বপ্নরা স্বপ্ন নয় - এমদাদুল কাদের

বর্বিণ রংচটা অতীত পরে থাকে নি:সঙ্গ চিলেকোঠায় গায়ে তার প্রাগতৈহিাসকি মাকড়শারজাল, জমে থাকা বিগত দিনের রঙ পরে থাকে এক কোনায় মাথার উপরে নড়ে চড়ে শুন্যতার কালো চাদর। পিরহানের পকেটে থকেে পরে যায় তশবী গায়ে যার লেখা ছিল বিদেশী ভাষায় কিছু শব্দ, রক্ষাকারীর অলক্ষ্যেই হারায় এক ভবিষত সুন্দর এক স্বপ্..

আরও পড়ুন
;

আত্মকাব্য ■ ওয়াহিদ জালাল

কিছু মানুষ বুকের ভেতর থেকে দূরে যায়ই না, নিজেকে আগুনে পুড়াই, ছিঁড়ে-ফেঁড়ে ক্ষতবিক্ষত করি প্রতিদিন । তবু প্রিয় মানুষেরা জীবনের মতো জেগে থাকে বুকের ভেতর। আর আমাকে আহত করে তাদের ভুলে থাকা। মনে রেখো ওয়াহিদ, তুমি যারে ভালোবাসো যদি সে ফিরে তাকায় না। ঠোঁট ক্ষুধার্তই রয়ে যায় দুটি চোখ যদি বৃষ্টিতে হাসে..

আরও পড়ুন
;

দীর্ঘ রাত - মোশাররফ মাতুব্বর

রাতগুলো নদীর মতো দীর্ঘ হয় মৃত্যু কেবলই দূরে দূরে যায়।সহস্র দামে কেনা অল্প কিছু সুখ পায়ে পায়ে রয়। হায় তবুও একজীবনে তোমাকে বুঝা হল দায়!কতটা দূরে যেতে পারো যতটা আমি থাকি, তারচেয়ে না হয় ছেড়ে যাবার সন্ধি করি। আমাকে নিয়ে যতবার খেলেছো ভুল পথে, মানুষ ভাগ‍্যগুনে জন্মায় অতবার। ভালো রাখার নাম করে ত..

আরও পড়ুন
;

চন্দ্রমল্লিকা মূলঃ মাহমুদ দারবিশ অনুবাদঃ অরণ্য আপন

ঘোড়া কবিতা নিয়ে পড়ে যায় এবং গালীলে নারী প্রজাপতি আর শিশিরে সিক্ত হয়ে যায় যে চন্দ্রমল্লিকা ফুলের ওপর নাচছিল। তুমি আর আমি, আমি আর তুমি, আমাদের দুজনের অনুপস্থিতি মানে একজনের অনুপস্থিতি। এক জোড়া শাদা কবুতর ওক গাছের ডালে বসে প্রেম করছে। ভালোবাসা নেই, কিন্তু আমি আদি প্রেমের কবিতা ভালোবাসি যা ধোঁয়া থেকে..

আরও পড়ুন
;

তুমি যেহেতু জেগে আছ মূলঃ মাহমুদ দারবিশ অনুবাদঃ অরণ্য আপন

তুমি যেহেতু জেগে আছ এই মুহূর্তে রাজহাঁসের সর্বশেষ নৃত্য মনে করতে পার।তুমি কখনো ফেরেশতাদের সাথে নৃত্য করেছযখন তুমি স্বপ্ন দেখতে, প্রজাপতি আলোকিত করেছে তোমাকে যখন গোলাপের ভেতরের আলো নিভে গেছে।তুমি কি কখনো ফোয়েনিক্স পাখিকে স্পষ্ট ভাবে দেখেছ&nb p; কখনো তোমার নাম ধরে তোমাকে ডেকেছে তোমার প্রেমিকার অাঙুলে..

আরও পড়ুন
;

মধ্যযুগের কবিতা, মঙ্গলকাব্য- ভারতচন্দ্র রায়গুণাকর

পাতশা কহেন শুন মানসিংহ রায়। গজব করিলা তুমি আজব কথায়।। লস্করে দু’তিন লাখ আদমী তোমার। হাতী ঘোড়া উট গাধা খচর যে আর।। এ সকলে ঝড় বৃষ্টি হৈতে বাঁচাইয়া। বামণ খোরাক দিল অন্নদা পূজিয়া।। সয়তান দিল দাগা ভূতেরে পূজায়। আল চাউল বেঁড়ে কলা ভুলাইয়া খায়।। আমারে মালুম খুব হিন্দুর ধরম। কহি যদি হিন্দুপতি পাইবে সরম।। সয়..

আরও পড়ুন
;

ফ্রাঙ্ক স্টানফোর্ড এর কবিতা বাঙলায়ন: রহমান হেনরী

ফ্রাঙ্ক স্টানফোর্ড: ভিন্নস্বরের মার্কিন কবি। জন্ম ১৯৪৮ সালে, মিসিসিপিতে। পরবর্তীতে আরকানসাসে চলে যান। আরকানসাস বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রকৌশলবিদ্যা অধ্যায়ন করেন এবং তার সংক্ষিপ্ত জীবনের অধিকাংশ সময় আরকানসাসেই অবস্থান করেন। তাঁর রচিত দশটি কবিতাগ্রন্থের ৭টিই জীবনাবসানের আগের সাত বছরে লেখা। মাত্র ২৯ বছর ব..

আরও পড়ুন
;

তুমি, হে সুন্দর - নির্মলেন্দু গুণ

তুমি, হে সুন্দরতুমি সুন্দর একটু কমাও তো!তাকে একটু থামতে বল, প্লিজ।আমি তো তোমার মুখের দিকেএকেবারে তাকাতেই পারছি না। বোরখা না-ই পরতে চাও যদি,ওড়না দিয়ে ঢাকো চোখ-মুখ।কালো ওড়না না পরাই ভালো,তাতে বরং উল্টো ফলই হবে। না, এইভাবে চলতে পারে না।যদি গাছের পাতাগুলিও শেষেফুলের মতো ফুটতে শুরু করে—ধরিত্রীর ধ্বংস ত..

আরও পড়ুন
;

হেলাল হাফিজের কবিতা

তাবিজএ কেমন তাবিজ করেছো সোনা, ব্যথাও কমেনা, বিষও নামেনা!অবেলার খেলাপ্লিজ, অবেলায় তরঙ্গ তুলিয়া রঙ্গে ভঙ্গ দিও না, ওগো, বাঁচিবোনামরিয়া যাইবো আমি মরণের আগে!ব্রহ্মপুত্রের মেয়েএক জীবনের সব হাহাকার বুকে নিয়ে অভিশাপ তোমাকে দিলাম,তুমি সুখী হবে, খুব সুখী হবে।বেদনা আমাকে নিয়ে আশৈশব খেলেছে তুমুল, আরতিলে তিলে শ..

আরও পড়ুন
;

আফগানিস্তানের দারি কবিতা

ভূমিকাআফগান সাহিত্যের এক ব্যাপক অংশ সৃজিত হয়েছে দারি (ফার্সি ভাষার আফগান রূপ) ভাষায়। দারি কবিতায় আধুনিকতার সূত্রপাত হয় ষাটের দশকের প্রথমার্ধে, পাশের দেশ ইরানের ফার্সি কবিতার বিবর্তনের প্রভাবে। ইরানে ‘ফ্রি স্টাইল পোয়েট্রি’ বা মুক্তক ঘরানাকে ধ্রুপদি কাব্য প্রকরণের দৃঢ় রীতি ভেঙে ভিন্ন এক ভাবনাপ..

আরও পড়ুন
;

মাহবুব বারীর দুটি কবিতা

টাকা_ভাঙাতে_গিয়ে টাকা ভাঙাতে গিয়ে হারিয়ে গিয়েছিলাম। টাকার শব্দে ঘুমন্ত মানুষগুলো জেগে উঠেছিল পাড়াজুড়ে, তাদের অশীতিপর অসুস্থ পিতামাতা এবং শিশুরা প্রস্রাবের বেগে ঘুমের মধ্যে— এই অভাবিত ঘটনায় বিমূঢ় দোকানদার পথচারী, উন্মাদ, ভণ্ড সন্ন্যাসী, ছিনতাইকারী আর এক ক্ষুধার্ত যুবতি আমার পিছু পিছু ছুটেছিল। ধীবর আ..

আরও পড়ুন
;

গোলকধাঁধা- নাজমুল হোসাইন

বেদনার্ত-মোরগের সুরে-- আমি, সকাল হওয়ার প্রত্যাশায়! ধরো, একদিন কোমল রোদে প্রকাশিত হলাম। কী হবে এতে! আমার পকেটে বাসা বাঁধবে কীটাণু। মাকড়শা পায়ে জড়াবে জাল। তুমি বলো, কতবার জাল ছিঁড়ে দেখাবো মৃত্যু সেই অনতিক্রম্য পাহাড়ের গুহা যেখানে আত্মগোপনকারী প্রতিটি ব্যক্তি রবার্ট ব্রুস! ব্রাকেটের ভিতর যাবতীয় র..

আরও পড়ুন
;

কোহিনুর আকতার এর দুটি কবিতা

অন্তরালের কেউ বহতা এক হৃদয়; নিদ্রাকাতর চোখ দুটো; অন্তরালের কেউ হয়ে বারবার এসে ফোটো না চাইতে রোজ তোমায় পাই! জানো! প্রয়োজনের অনেককিছুই অসময়ে অপ্রয়োজন! দেহমন; ক্লান্ত হয় সারাক্ষণ! ভালোবাসারা ক্লান্ত হয় না মোটে! লক্ষহাজার মনের কথা আটকে থাকে ঠোঁটে! কথারা সব হারিয়ে যায়; ফুরোয় প্রয়োজন; কেবলই স্বপ্ন..

আরও পড়ুন
;

একটি মানব-জন্ম কেটে যাক স্বচ্ছতায় আর নির্ভয়ে - খালেদ হোসাইন

১ অন্তরের গভীর থেকে উঠে আসা তোমার সমস্ত কথা ভুলে যাবে, আর আমি মাতালের মতো চষে ফিরব সেইসব পথ ঘাট আঘাটা ও অন্ধকার। গন্তব্যে বিপরীত দিকে হেঁটে কয়লাকুঠিতে গিয়ে চুমু খাব গোয়েন্দার পায়ে। ২ আমার তো ফেরা নেই আমি শুধু যেতে জানি, যাই। মধ্যাহ্নভোজনে দেরী হলে মাথা ধরে, শিরঃপীড়া নিয়ে রাত্রির গভীরে যা..

আরও পড়ুন
;

বাগান বিলাস - অরণী চাকমা অরু

সবুজ স্বপ্নেরা লতিয়ে উঠেছিলো কেমন মোহন মায়ায় আকাশটা জুড়ে ছিলো শুধুই নীল চাঁদোয়া অজস্র স্বপ্নের বুনটে ঠাসা হাওয়ারা দুলিয়েছিলো অরূপ দোলাচলে বলেছিলো সাতটা আসমান জোড়া হবে ভালোবাসা সে এক অন্য পৃথিবী জেনো। একমুঠো অলীক আশার বীজ হাতে গুঁজে দিয়েছিলো সে আগামী অনিশ্চিত জেনেও আলোছায়ার মেকী আঙিনা জুড়ে তবু অজ..

আরও পড়ুন
;

রহমান হেনরী'র দুটি কবিতা

।। প্রতিবেশী ।।যে যার দুয়ারে আঁটা খিল। ভালো হোক, মন্দ হোক— এ নগরে, পাওয়াই মুস্কিল; তবু যারা আছে, নিকট ও দূর, সকলেই ভালো— বাড়ির ভেতরে কত আলো জ্বেলে দিয়ে, সিঁড়িপথ ধু ধু অন্ধকার একজন তো আমাকে অনেক ভালোবাসে! প্রতিদিন, পাকে ও প্রকারে ফেলে, খুন করতে চায়, কিন্তু আমি এমন তাজ্জব; তারই গলায় কাটাচিহ্ন দেখি। রক..

আরও পড়ুন
;

রহমান হেনরী'র খেরোখাতা

কবি, বিশ্বকবিতার বাঙলায়ন কর্মী, ‘পোয়েট ট্রি’ নামক কবিতাকাগজের সম্পাদক। জন্ম: ১৪ জানুয়ারি ১৯৭০, তদানীন্তন রাজশাহী জেলার নাটোর মহাকুমায়। ষোল বছর বয়স পর্যন্ত শৈশব কেটেছে নাটোর শহরে। পড়াশুনা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে। বাংলাদেশ প্রজাতন্ত্রের নির্বহিী বিভাগে কর্মরত , বর্তমানে স্থায়ীভাবে ঢাকায় বসবাস করছেন..

আরও পড়ুন
;

বাবার মাখা আতরের সুবাস - ওয়াহিদ জালাল

বাবা, আমি কোথায় যাবো কার কাছে যাবো বুকের ভেতর হু হু করে কান্না করছে তোমার মায়ায় ভেজানো সান্তনা। এতোটা একা আমি খুব কমই হয়েছি তোমার শেষ নিদ্রার পূর্ব মূহুর্ত পর্যন্ত, যতটুকু আজ সময়ের মাঝখানে দাঁড়িয়ে বিচলিত করছে বর্তমান। সড়কের পাশে কষ্টের তসবিহ্ হাতে দাঁড়িয়ে ছিলাম, হঠাৎ নাকে এসে লাগল তুমি যে আতর..

আরও পড়ুন

সাবস্ক্রাইব করুন! মেইল দ্বারা নিউজ আপডেট পান