ছড়া

;

আবোল তাবোল আবোল তাবোল - সুকুমার রায়

আয়রে ভোলা খেয়াল-খোলা স্বপনদোলা নাচিয়ে আয়, আয়রে পাগল আবোল তাবোল মত্ত মাদল বাজিয়ে আয়। আয় যেখানে ক্ষ্যাপার গানে নাইকো মানে নাইকো সুর, আয়রে যেথায় উধাও হাওয়ায় মন ভেসে যায় কোন সুদূর। আয় ক্ষ্যাপা-মন ঘুচিয়ে বাঁধন জাগিয়ে নাচন তাধিন্ ধিন্, আয় বেয়াড়া সৃষ..

আরও পড়ুন
;

ভূত-পেত্নী | পলাশ বসু

ভূতের সাথে দোস্তি আমার অনেক অনেক কাল হঠাৎ নাখোশ হয়ে পেত্নী মিটাতে চাইলো ঝাল। হুমকি দিলো পেত্নী আমায় করবে কঠিন হাল পেলেই হলো বাইরে শুধু তুলবে গায়ের ছাল। এমন হুমকি পেয়ে আমি দারুণ পেলাম ভয় ভয়ে আমার কাঁপছে পিলে, কখন কী যে হয়! এসব শুনে ভূতের রাজা জলদি আসলো ছুটে অভয় দিলো, আদর দিলো, ভয় গেল সব টুঁটে। আবার আমি মনের সুখে ঘুরছি হেতা-সেথায় ভয় পাই না এখন আমি পেত্নীর খেলো কথায়। ভূত-পেত্নীর এসব কথন গাল-গপ্পেই মানায় সত্যি বলছি ভূত-পেত্নীকে মানুষ শুধু বানায়।..

আরও পড়ুন
;

ওরে চড়ুই- নজরুল জাহান

ওরে চড়ুই উড়ুই উড়ুই যা না উড়ে তেপান্তরে তেপান্তরে সোনার কোঠায়..

আরও পড়ুন
;

বাল্য বিয়ে- আজিজ আহমেদ

পুতুল খেলা শেষ না হতেই হয়ে গেল বিয়ে দায় মুক্ত হলেন পিতা যৌতুক- ইনাম দিয়ে । কানুনের ভয় নেই কারো ধর্মকে করে অন্ধ কাজী হুজুর সবই জানে কেউ করেনা বন্ধ । ঝড়ে গেল একটি গোলাপ কেউকি রাখে খবর আঁকা সকল স্বপ্নের আজি রচিত হল কবর । ভেঙ্গে যাবে স্বপ্ন সংসার ভেঙ্গে যাবে স্বাস্থ্য দুর্বল শিশুর জন্ম হবে সূর্য যাবে অ..

আরও পড়ুন
;

মৎস্য পদ্যের রন্ধন পুস্তক “ফিসডিস” প্রকাশিতব্য

সম্প্রতি ফেসবুকে একটি ইভেন্ট বহুল চর্চিত হচ্ছে । “লেটস টেস্ট দা রিদম অফ ফিসডিস” ।&nb p; মৎস্য ও পদ্যের এক সুন্দর মিশ্রনে নতুন ছড়ার বই। বইয়ের নাম “ফিসডিস” । চমৎকার নামকরনে পাঠককুলের দৃষ্টি আকর্ষন করে নিয়েছেন। সোশ্যাল মাধ্যমে বই প্রকাশের একটা ইভেন্ট তৈরি করছেন ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের মৎস্য বিভাগের..

আরও পড়ুন
;

নীলিমা শামীম'র ছড়া

ছড়াকার: নীলিমা শামীমএলোমেলো ভাবনা মন আমার কত কিছু-- হতে চাইযে________ লজ্জা রাঙা আখি শুধু&nb p; ভুলিয়ে দেয় সে চাওয়া কে যেনো দূরে বসে কিছু কয় যে---- কাজল কালো আখিতে রাঙা দুটি নুপুর পায়ে রুমঝুম রুমঝুম নাচন নেচে কত না জানা কথা কয়যে----- শাড়ির আচল উড়িয়ে ওই আকাশ পানে --- পাখির ডানা..

আরও পড়ুন
;

নাতনির জন্য ৫টি ছড়া - হেনরী স্বপন

কবি হেনরী স্বপন'র নাতনি এক ভোরের দেশে নাকি আলসে’ খোকাখুকি ঘুমিয়ে ওঠে কাল্ সে পড়তে পড়তে শুয়ে পরা একটা ফড়িং দেয় না ধরা। বরফ ঝরায় বৃষ্টি পাটালি গুড় মিষ্টি। পড়তে পড়তে পাখির মন নাতনি বাড়ি আরলিংটন।দুই হাসের ছানা, দুধের ক্ষীর হাসতে মান্, পরির ভিড়। ঝিলিক দিচ্ছে বাইরে রোদ পরিরা সব ওড়ায় পারদ। পারদ উড়লে..

আরও পড়ুন
;

জুসেফ খানের পাঁচটি ছড়া ।

ছড়াকার জুসেফ খাননাম: জুসেফ খান (প্রবাসী ছড়াকার)পিতা: ছড়াকার কাদের নওয়াজ খান মাতা: সুলতানা খান জন্ম ২৯ ডিসেম্বর ১৯৭৬ঠিকানা: খান মন্জিল,ভার্থখলা, সিলেট লেখাপড়া :সিলেটের রাজা জি সি হাইস্কুল থেকে মাধ্যমিক পরীক্ষা পাশ করার পর ,মদন মোহন কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পড়াশোনা করেন । পরবর্তীতে মুরারি চাঁদ কলে..

আরও পড়ুন
;

খোয়াব নামা - মো: ওবায়দুর রহমান বেলাল

ছড়াকার - মো: ওবায়দুর রহমান বেলাল স্বপ্ন নিয়ে বাঁচে মানুষ, স্বপ্নের জাল বুনে ; স্বপ্নগুলো ফাঁনুষ হয়ে ছুটে আকাশ পানে। &nb p; স্বপ্ন আমার হৃদয়জুড়ে আকাশ ভরা তাঁরা ; মেঘের আড়াল হলে ধ্রুব&nb p; হই যে দিশাহারা। &nb p; পিতারস্নেহ&nb p; মায়ের আদর..

আরও পড়ুন
;

বর্ণ দিয়ে ছড়া - হাসানআল আব্দুল্লাহ

ছবি : কবি হাসানআল আব্দুল্লাহ অ অ-তে অশ্বডিম্ব মানে হলো ফাকিবাজি, দিলেও কেনো সে ডিম আমি খেতে তবে হবো রাজি! আ আ দিয়ে হয় আরাধনা মানে হলো নত হওয়া; সোজা তো নয় মাথা উঁচু তাল তমালের মতো হওয়া! ই ই দিয়ে আজ ইদ লেখা হয় একাডেমীর নতুন নিয়ম, ঈদ লিখলে ফিরনি পায়েস পেতে পারো কিছুটা কম! ঈ ঈগল কিন্তু এখনো জানি মেলছে প..

আরও পড়ুন
;

জসীম মেহবুব এর গুচ্ছছড়া

ছড়াকার : জসীম মেহবুব আর কত দিবি ফাঁকি &nb p; এখন তো কেউ চিঠি লেখে না মা সব চলে মুঠোফোনে, চিঠিরা ডুকরে ডুকরে কাঁদছে ড্রয়ারের এক কোণে। &nb p; মা-বাবার চিঠি, দাদিমার চিঠি, ভাই-বোনে চিঠি লেখা, কোথায় হারালো এখন ওসব কই পাবো তার দেখা &nb p; চিঠিতে চিঠিতে..

আরও পড়ুন
;

বাস্তবধর্মী ছড়াকার জুসেফ খান - শাকিল আহমেদ মুন

গ্রন্থের প্রচ্ছদ &nb p; সূচনাপত্র: “জুসেফ খান” একজন বাস্তবধর্মী রম্যকথার ছড়াকার্ । রসবোধের জায়গা ছন্দের ভিতর দিয়ে বাস্তব চিত্রপট করেন অনায়েসে। প্রতিটি ছড়ার ছন্দে ফুটিয়ে তুলেন সমাজ বাস্তবিক জীবনে নানান অসংঘতির জটবাঁধানো চিত্র । ভাবনায় উঠে আসে ছড়ার ভিতর আদি ও বর্তমানের কৌতুহল । নির্ম..

আরও পড়ুন
;

রেবেকা ইসলাম এর সমকালীন ছড়াগুচ্ছ

ছড়াকার : রেবেকা ইসলামপ্রশ্নপত্র ফাঁসদেশের নতুন সমস্যা আজপ্ৰশ্নপত্র ফাঁসগুটিকয়েক লোকের কাছেলক্ষ মানুষ দাস।ভর্তি হ‌ওয়ার পরীক্ষাতেকিংবা চাকরি পাওয়ায়কিছু টাকা করলে খরচপ্রশ্ন মেলে হাওয়ায়।প্রতিবছর নতুন আশানতুন বাণীর ধারাশিক্ষা হবে শঙ্কামুক্তকলঙ্কের দাগ ছাড়া।কিন্তু বছর ঘুরে যেতেইআশার গুড়ে বালিকালো থাব..

আরও পড়ুন
;

আজিজ আহমেদ এর গ্রন্থ থেকে ছড়াগুচ্ছ

ছড়াকার : আজিজ আহমেদ চাঁদের হাসি &nb p; অস্তাচলে চাঁদের হাসি, কাল ঈদ তাই সবাই খুশি। নতুন জামাজুতা নেব, পিঠাপায়েস মিষ্টি খাব। বটের তলা ঈদের মেলা, চড়ব সবাই নাগর দোলা। হরেক রকম খেলনা নেব, সবার মাঝে বিলিয়ে দেব। ভুলে যাব সব দ্বন্দ্ব বেটে নেব ঈদ আনন্দ। &nb p;..

আরও পড়ুন
;

সমকালীন দুটি ছড়া

সুস্থতা কি বাংলাদেশের মানচিত্রে নেই তাকাবো কই পোড়া আকাশ , মাঠও কেমন জ্বলে বারুদ পোড়ার গন্ধ ভাসে জলে এবং স্থলে কান ফেটে যায় ভোকাল শুনে,মাইকে ঝড়ের ধেই- সুস্থতা কি বাংলাদেশের মানচিত্রে নেই আজ হরতাল, কাল অবরোধ, পরশু ধরাধরি সাজলো সবাই এক পায়ে বক , নেইতো নড়ানড়ি ঘর পুড়ে যায়, চাল উড়ে যায়, নেই কোথ..

আরও পড়ুন

সাবস্ক্রাইব করুন! মেইল দ্বারা নিউজ আপডেট পান