ইউসুফ আহমেদ শুভ্র এর কবিতা
$post->title
আমার বন্ধু হরিপদ


   
আমি আর হরিপদ বন্ধু ছিলাম
তোমাদের এই যুগের বন্ধুদের মতো না
আমরা ছিলাম জন্ম জন্মান্তরের বন্ধু
গলায় গলায় আমাদের  ভাব ছিলো!

আমরা পোড়াবাড়িতে গিয়ে বাংলামদ গিলতাম
আমরা দুইজন দুইজনরে গালাগাল দিতাম
গালাগালি শেষে গলাগলি করে ঘুমাতাম আমরা!

আমি তখন হাইস্কুলের কেরানি 
আর হরিপদ মরা পোড়ায়
মরা পোড়ানোর টাকায় আমরা মদ গিলতাম
আর আমার টাকায় দুইজনের সংসার!
সংসার বলতে তো সেই একই নিয়ম
বেলা দিপ্রহরে বিছানা ছেড়ে দু'মুঠো ভাত চড়াতাম 
সাথে কয়েকটা আলু,কখনো সখনো নিরানিষ 
স্নান সেরে আয়েস করে খেতাম আর 
রাতে দিতাম মদে ডুব!

হরিপদ,আমার বন্ধু
ভালোবাসতো কৃষ্ণপুরের একটা মেয়েকে
আমরা মাঝেমধ্যে দেখা করতে যাইতাম
আমি পাহারা দিতাম আর হরি চুমু দিতো!

একদিন হরি কৃষ্ণপুরের সেই মেয়েকে
যার নাম জানি না আমি
হ্যা,সেই মেয়েকে চুমুয় চুমুয় ভরিয়ে দেয়
আমি বারবার দেখছি মেয়েটার শক্ত হয়ে উঠা শরীর
নরম হয়ে যাওয়া চোখ,কাপতে থাকা ঠোঁট
প্রবল আহবানে আঁকড়ে ধরা
না বলা শরীরী কথা এক নিমিষে বলে যাওয়া!

নাম না জানা সেই মেয়েটা এখন আমার বউ
হরিপদের মরা আমি নিজ হাতে পুড়িয়েছি!

সাবস্ক্রাইব করুন! মেইল দ্বারা নিউজ আপডেট পান