কবি আরিফুল ইসলাম এর তৃতীয় কাব্যগ্রন্থ প্রি-অর্ডার করতে এখানে ক্লিক করুন
লাকী লতীফা এর কবিতাগুচ্ছ
$post->title
তোমাকেই চাই

আমি বার বার বহুবার তোমাকেই চাই
রিমঝিম বৃষ্টিতে ভিজে তোমায় ছুঁতে চাই
ভেজা শাড়ীতে তোমায় জরিয়ে নিতে চাই।


অনেকটা দুর বহুদূর পাড়ি দিতে চাই,
সারাবেলা তোমায় পাহারায় রাখতে চাই
বিকেলের মিষ্টি আমেজে চায়ের কাপে চাই।


নয়ত রাতের নির্জনতায় তোমায় চাই
নিসঙ্গতার কলরোলে তোমায় চাই
গভীর ঘুমের মাঝেও তোমার স্পর্শটা চাই।


বাধঁ না মানা জোছনায় মায়াবীতে
প্রতিটা গল্প কিংবা কবিতার মাঝে
নদীর একুল থেকে ওকুলের সবটুকুতে
রকমারি জীবনের প্রতিটি অলি গলিতে
আমি বার বার বহুবার তোমাকেই চাই।

বোঝনি

সকাল থেকে রাত অবধি যে কিনা ব্যস্ত
নিজের দিকে তাকানোর সময়টা নেইতো।


সে কি করে সাজবে নিত্য নতুন আস্ফালনে,
কি করে কর্তার চোখদুটো জুরাবে।


হেসেল ঠেলা,বাসন মাজা,শশুর শাশুরী,
সন্তানদের দেখাশুনা আরো নিত্য কত কাজের পশরা।


সারাবেলা নিজেকে উজার করে সংসারে দেওয়া
রাতটাকে আর সময় দিতে চায়না,
বড় ক্লান্ত অবসন্নতায় নিজেকে মেলে ধরে বিছানাটায়।


তারপরও বাড়ির কর্তার মনটা পায়না
আজকাল বাইরে থেকে কি যেন শোনা যায়
মেতেছে নাকি অন্য কিছুতে অন্য কোন নারীতে।


একদিন শুধালাম,এমন কেন কর?
আমায় আর ভাল লাগেনা তোমার
তুমি বললে, না লাগেনা।
তোমার মাঝে কোন জৌলুস নেই।


অবাক হয়ে শুনছিলাম বললাম কেন?
তুমি আচমকাই বলে দিলে, তোমার শরীর ভরা গন্ধ
মাছ,মাংশ, সবজির কি বিশ্রি, তুমি বোঝনা অন্ধ।


আমি ইচ্ছে করলে রাখতেই পারতাম কাজের লোক
সংসারের আয় হবে,তোমার কষ্টটা কমবে,
কত কষ্টটা হয় টাকা রোজগারে।

তুমি বোঝনি,কয়েকটা দিন পর ঠিক বিয়ে করলে
কি সুখ পেলে জানিনা ফেললে আমায়
চরম অপমান আর অনাদরের উঠোনটায়।


সুন্দর কাপড়,পরিপাটিতে নিজেকে রাখতে পারিনি
ঠোটেঁ টকটকে লিপিষ্টিক,চোখেও কাজল পরিনি।
সময়টুকুই তো আর হয়নি বা পাইনি
তবে সত্যিই বলছি বড্ড ভালবাসি।


তুমি বোঝনি, ভালবাসার প্রকৃত রংটি তুমি দেখনি,
তোমার কথা ভেবে আমার সব বিসর্জন
তোমায় আর একটু ভাল রাখবার শত আয়োজন
তুমি বোঝনি, রাতের বুকে কত চাপাঁকান্না শোননি।


তোমার একটু পরশ,একটু আদর,একটু ভালবাসা
কচুপাতার উপর একটি শিশির ফোটা
তার জন্য আমার শত সহস্র ব্যকুলতা।


তুমি বোঝনি সত্যিই বোঝনি
আমার ভালবাসা,তারপরও ভালবাসি
তোমায় আর কারো সাথে দেখব কি করে
তাইতো শিশির বিন্দুটা ঝড়েই গেল
একবুক অবহেলা নিয়ে খসে পড়ল নাহয় মাটিতে।।

ইচ্ছে করে

সরষে ক্ষেতের হলুদের মাঝে
শুধু তুমি আর আমি কেও রবেনা সাথে।


ইচ্ছ করে কলেজের সেই বেলকনিতে
চুপি চুপি লুকিয়ে অভিসারে
যাই কোথাও হারিয়ে।


ইচ্ছে করে একটি জলপাই আবারো
আধেকটা তোমার বাকিটা আমারো।
ইচ্ছে করে নতুন করে সবটা সাজাতে
তোমার কষ্টগুলো সব আমার করে নিতে।


ইচ্ছে করে আরো রঙিন স্বপ্নে রাঙিয়ে
আবারো দুজন ঘর ছেরে পালাতে।


ইচ্ছে করে সেইযে কলেজ ক্যাম্পাসে
হাতে হাত রেখে একসাথে পথ চলতে।


জীবনের অনেকটা পথ পেরিয়ে দুজনে
গড়েছিনু মোরা সর্বসুখ এর রাজপ্রাসাদযে।


তবুও হাহাকার গেল রয়ে
তৃপ্ত নই লগ্নযে গেল বয়ে
অনেকটা বাকী রইলোযে
তোমায় ভালবাসতে।।
আরেকটা জনম যদি পাইগো
বন্ধু যেন শুধু তোমাকেই চাইবো।।


সাবস্ক্রাইব করুন! মেইল দ্বারা নিউজ আপডেট পান