কবি সমুদ্র গুপ্তের জন্মদিন আজ
$post->title

কিছু মানুষ থাকেন---- কবি মানুষ, যিনি কবিতার চেয়ে অধিক হয়ে ওঠেন ব্যক্তিমানুষ হিসেবে। সমুদ্র গুপ্ত সেই শ্রেণীর কবি যিনি ব্যক্তিমানুষ হিসেবে অতিক্রম করে গিয়েছেন কবিতাকে।

মাথাভর্তি তাঁর ধপধপে চুল কাঁধ পর্যন্ত আর মুখ ঢেকে যাওয়া সাদা ধবধবে গোঁফ-- যেন প্রাচীন ভারতের ঋষিপুরুষ। এহেন সমুদ্র গুপ্তকে যে কেউ একবার তাকিয়ে দেখবেন না, তা হয় না। শুভ্র কেশ আর শুভ্র গোঁফ আর দুধে আলতায় মিশানো গাত্রবর্ণের বিলিয়মান চিহ্ন অসাধারণ পুরুষ প্রতিমা করে গড়ে তুলেছে কবি সমুদ্র গুপ্তকে।

অসাধারণ রস ও রসিকতা ছিল তাঁর বাকচাতুর্যের শক্তি ও সৌন্দর্য। তিনি কথা বলতে এবং কথা শুনতেও ভালোবাসেন। আড্ডা যে তাঁর প্রাণ, সেই আড্ডায় যেন কখনই কেউ তাঁর দ্বারা আক্রান্ত না হন, কষ্ট না পান, বিব্রতবোধ না করেন, এ যেন আড্ডাপ্রিয় মানুষ সমুদ্র গুপ্তের কোড অব কন্ডাক্ট। অধিকন্ত আড্ডাকে প্রাণবন্ত করে তোলার জন্য জাদুকারী শক্তিতে তিনি সবার অংশগ্রহণ অপরিহার্য করে তোলেন। ফলে যেখানে সমুদ্র গুপ্ত সেখানেই প্রাণ খুলে আড্ডা। যারা শাহবাগ ও আজিজ সুপার মার্কেটের বইয়ের দোকানে আসেন, তারা সমুদ্র গুপ্তের আড্ডায় কম-বেশি অংশগ্রহণ করেননি এ কথা তারা বলতে পারবেন না।

কবি সমুদ্র গুপ্তের পারিবারিক নাম আবদুল মান্নান বাদশা। ষাটের দশকের মাঝামাঝি থেকে "সমুদ্র গুপ্ত" ছদ্মনামে কবিতা, গল্প, প্রবন্ধ, নিবন্ধ, কলাম লিখেছেন। কর্মজীবনের বিভিন্ন পর্যায়ে তিনি ছিলেন প্রেসের কর্মচারী, করাতকলের ম্যানেজার, জুটমিলের বদলি শ্রমিক, উন্নয়ন সংগঠনের নির্বাহী, ওষুধ ও চিকিৎসা ব্যবসা, প্রুফ রিডার, সাংবাদিকতা, পেশাদার লেখক এবং সর্বোপরি কবি!

তাঁর উল্লেখযোগ্য কাব্যগ্রন্থ : 'রোদ ঝলসানো মুখ', 'স্বপ্নমঙ্গল কাব্য', 'এখনো উত্থান আছে', 'চোখে চোখ রাখে', 'একাকী রৌদ্রের দিকে', 'শেকড়ের শোকে', 'ঘাসপাতার ছুরি', 'সাত সমুদ্র নদীও বাড়িতে ফেরে', 'ছড়িয়ে ছিটিয়ে সেই পথ', 'চলো এবার গাছে উঠি', 'হাতে হাতে তুলে নিলে এই বাংলার মাটি রক্তে ভিজে যায়', 'তাহলে উঠে দাঁড়াব না কেন', 'খালি হয়ে গেছে মাথা শুধু ওড়ে'।

প্রবন্ধগ্রন্থ : ডিসেম্বরের রচনা। সম্পাদনা গ্রন্থ : বাংলাদেশে বঙ্কিম অন্যান্য।

কবিতার জন্য হুমায়ুন কবির পুরস্কার, যশোর সাহিত্য পরিষদ পুরস্কার, কবি বিষ্ণু দে পুরস্কার (ভারত)। ভারতের ত্রিপুরা সরদার প্রদত্ত ভাষা দিবসসহ অসংখ্য সম্মাননায় ভূষিত হয়েছেন।

১৯ জুলাই ২০০৮ সালে সমুদ্র গুপ্ত মারা যান।

কবি সমুদ্র গুপ্ত ১৯৪৬ সালের আজকের দিনে (২৩ জুন) সিরাজগঞ্জে জন্মগ্রহণ করেন।


সাবস্ক্রাইব করুন! মেইল দ্বারা নিউজ আপডেট পান